উত্তর-পূর্ব আফ্রিকার রাজধানী জেবুতিতে নির্মিত হয়েছে উসমানি খেলাফতের শেষ সুলতান দ্বিতীয় আবদুল হামিদের নামে সর্ববৃহৎ মসজিদ কমপ্লেক্স। জেবুতির প্রেসিডেন্ট হাউসের পাশে বিশাল এই মসজিদ কমপ্লেক্সটি গড়ে উঠেছে। ২০১৫ সালে কমপ্লেক্সের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোয়ান ও জেবুতির প্রেসিডেন্ট ইসমাইল ওমর গাওলা।

তুরস্কের ধ’র্ম মন্ত্রণালয়ের আর্থিক সহযোগিতায় মসজিদের নি'র্মাণকাজ চলতি মাসে শেষ হয়। উসমানীয় স্থাপত্যশৈলীতে নির্মিত হলেও তাতে ব্যবহার করা হয়েছে আধুনিক নি'র্মাণসামগ্রী। ১৩ হাজার বর্গমিটার জায়গা নিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে সুলতান আবদুল হামিদ কমপ্লেক্স। যাতে একস’ঙ্গে ছয় হাজার মুসল্লি নামাজ আদায় ক’রতে পারবে। মসজিদের সর্বো’চ্চ গম্বুজে'র উচ্চতা ২৭ মিটার এবং তাতে রয়েছে ৪৬ মিটার উচ্চ মিনার। আধুনিক সুযোগ-সুবিধা, সৌন্দর্য ও নান্দনিকতায় সুলতান আবদুল হামিদ মসজিদ জেবুতির অদ্বিতীয় মসজিদের খেতাব পেয়েছে।

কমপ্লেক্সে নামাজে'র স্থান ছাড়াও ৪০০ জনের ক্ষ’মতাসম্পন্ন একটি ইসলামী শিক্ষাকে’ন্দ্র, সুবিশাল কনফারেন্স রুম, গণপাঠাগার, ধ’র্মীয় অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য উন্মু’ক্ত হলরুম এবং শি’শুদের কোরআন শিক্ষার জন্য স্বতন্ত্র মাদরাসা রয়েছে। এরই মধ্যে সুলতান দ্বিতীয় আবদুল হামিদ মসজিদ কমপ্লেক্স একটি পর্যটনস্থলে প’রিণত হয়েছে। প্রাচীন নি'র্মাণশৈলী ও আধুনিক কারুকাজে নির্মিত মসজিদের প্রতি আগ্রহ প্র’কাশ করছে দেশি-বিদেশি অনেক পর্যটক। স্থা’নীয় গণমাধ্যমের দা’বি অনুযায়ী প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ মসজিদ দ’র্শনে আসে।