বাংলাদেশে করো'না ভা'ইরাসে আ’ক্রান্ত হয়ে প্রথম এক ব্য’ক্তির মৃ ত্যুর খবর নি’শ্চিত করেছে বাংলাদেশের রো’গত’ত্ত্ব, রো’গ নি’য়ন্ত্রণ ও গ’বেষণা বিভাগ।

স’ত্তরো’র্ধ এই ব্য’ক্তি বিদেশফেরত নন। অন্য একজন আক্রা’ন্তের সংস্প’র্শে আ’সার কা’রণে তিনি সংক্র’মিত হ’য়েছিলেন।

তিনি নানা শা’রীরিক জ’টিলতায় ভু’গছিলেন।

তার কি’ডনি রো’গ, উচ্চ র’ক্তচা’প, ডায়াবেটিস, ফু’সফুসে সম’স্যা এবং হা’র্টের অসুখ ছিল। হার্ট সম’স্যার কারণে স’ম্প্রতি তার স্টে’নটিং বা রিং পরানো হয়।

তিনি গত কয়েকদিন হাসপাতালের আইসিইউতে ছিলেন।

এছা’ড়া নতুন চার জন করো'না ভা'ইরাসে আক্রা’ন্ত হ’য়েছে বলে জা’নানো হ’য়েছে।

তাদের করো'না ভা'ইরাসের উপস’র্গ মৃ দু হলেও অন্যান্য শা’রীরিক সম’স্যা র’য়েছে। একজন এর আগে স্ট্রো’কে আ’ক্রান্ত হ’য়েছিলেন।

৮ই মা’র্চ বাংলাদেশে প্রথম করো'না ভা'ইরাস আক্রা’ন্ত ব্য’ক্তি শনা’ক্ত হয়। সেসময় তিনজন করো'না ভা'ইরাস আক্রা’ন্ত শনা’ক্ত হওয়ার তথ্য জা’নায় আইইডিসিআর।

এরপর ১৪ই মা’র্চ শনিবার রাতে স্বা’স্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক আরো দু’জনের মধ্যে করো'না ভা'ইরাস শনা’ক্ত হওয়ার তথ্য জা’নান।

পর’বর্তীতে সোমবার তিনজন এবং মঙ্গলবার আরো দু’জনের মধ্যে করো'না ভা'ইরাস শনা’ক্ত হওয়ার তথ্য জা’নানো হয়।

আইইডিসিআরের পক্ষ থেকে জা’নানো হয় আ’ক্রান্তদের সবাই বিদেশ ফে’রত ব্য’ক্তিদের সংস্প’র্শে এ’সেছিলেন।

আইইডিসিআরের পরিচালক মীরজাদী সে’ব্রিনা ফ্লো’রা বলেন করো'না ভা'ইরাস আ’ক্রা’ন্ত কোনো দেশ থেকে বাংলাদেশে ফি’রে এলে ১৪দিন হোম কো’য়ারেন্টিন ক’রতেই হবে।

সেই নি’র্দে’শনা না মা’নলে শা’স্তিমূলক ব্য’বস্থা নেয়া হবে বলেও জা’নান তিনি।

সূত্র: বিবিসি