ভারতের না’গরিকত্ব সংশো’ধনী আ’ইন নিয়ে বেশ কিছুদিন ধ’রে উ’ত্তাল দেশটি। বিভিন্ন রা’জ্যে দ’ফায় দ’ফায় চলছে বিক্ষো’ভ, অনেক স্থা’নেই আ’ইনশৃ’ঙ্খলা র’ক্ষাকারী বা’হিনীর স’ঙ্গে সংঘ’র্ষ হচ্ছে আ’ন্দোলনকা’রীদের।

প্র’তিবাদের দা’বানল ছ’ড়িয়ে প’ড়েছে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতি’ষ্ঠানেও। দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে সংঘ’র্ষের রেশ কা’টতে না কা’টতেই স’ম্প্রতি জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়েও হয়েছে সংঘ’র্ষ। আর সব দে’খেশুনে এবার ক্ষে’পে গিয়ে বি’স্ফোরক ম’ন্তব্য ক’রেছেন বলিউড অভিনেত্রী ও লেখিকা টুইঙ্কেল খান্না।

সংবাদমা’ধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের প্র’তিবেদনে জা’না যায়, পাস হওয়া ওই আ’ইনের বি’রুদ্ধে স’ম্প্রতি জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষো’ভ প্রদ’র্শন ক’রতে থাকেন সহস্রা’ধিক শিক্ষার্থী। তাঁদের ওই বিক্ষো’ভে বা’ধ সাধে আ’ইনশৃ’ঙ্খলা র’ক্ষাকারী বা’হিনী। এতে সংঘ’র্ষ হয় দুই প’ক্ষের।

এই ঘ’টনার প্র’তিবাদের ক্ষে’ত্র হিসেবে সামাজিক যোগাযোগমা’ধ্যম টুইটারকে বে’ছে নেন টুইঙ্কেল। তিনি লে’খেন, ‘ভারত, যেখানে গরুকে শিক্ষা’র্থীদের চেয়ে কম নি’রাপত্তা পেতে দে’খা যায়। আ’ন্দোলনের কারণে আপনি মানুষকে অ’ত্যা’চার ক’রতে পারেন না। এতে আরো আ’ন্দোলন, আরো অ’বরো’ধ ও ধ’র্মঘট হবে, অ’ধিক পরিমাণে মানুষ রা’স্তায় নেমে আসবে।’ এই শিরোনামই তার সবটুকু বলে দি’চ্ছে।