যুক্তরাষ্ট্র থেকে ভারত একটি বিশেষ সুবিধা (জেনারালাইজড সিস্টেম অব প্রেফারেন্স বা জিএসপি) পেত। এবার সে সুবিধা ব'ন্ধ করে দিচ্ছে ট্রাম্প প্রশা’সন।

যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার জা’নিয়ে দেওয়া হয়েছে, ‘সিদ্ধা’ন্ত পাকা।

মোদি সরকারের স’ঙ্গে মা’র্কিন প্রশা’সনের সুস’স্পর্কের কথা সবার জা’না। ভারতের কূটনৈতিক মহলের একাংশ মনে করেছিল, নরেন্দ্র মোদি যেহেতু আবার প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন, এ অব’স্থায় এমন কোনো সিদ্ধা’ন্ত নেবে না যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু শেষমেশ তাই হলো। গত মা’র্চে ট্রাম্প প্রশা’সন জা’নিয়েছিল, ভারতকে জিএসপি সুবিধা থেকে বাদ দেওয়া হবে।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি জা’নায়, এই ব্যব’স্থাপনার মধ্যে যেসব দেশ থাকে, তারা যুক্তরাষ্ট্রে পণ্য রপ্তানিতে একটি বিশেষ ধ’রনের সুবিধা পেয়ে থাকে। এত দিন ভারতও সেই সুবিধা পেত। কিন্তু এবার থেকে তা আর পাবে না।

এই জিএসপি সুবিধা যে কটি দেশ পেত, তার মধ্যে ভারত ছিল সবচেয়ে বেশি লাভবান। ভারত ২০১৭ সালে ৫৬০ কোটি ডলার মূল্যের পণ্য যুক্তরাষ্ট্রে রপ্তানি করেছিল। তবে জিএসপির মতো এ রকম কোনো বিশেষ সুবিধা ভারতের দিক থেকে না থাকায় আপত্তি জা’নিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। অবশেষে জিএসপি সুবিধা প্রত্যাহারের পথেই হাঁটল মা’র্কিন প্রশা’সন।

মা’র্কিন প্রশা’সনের এক ক’র্মকর্তা বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদি দ্বিতীয়বারের মতো ভারতের প্রধানমন্ত্রী হওয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের স’ঙ্গে ভারতের স’স্পর্ক আরো ভালো হবে। কিন্তু মা’র্চ মাসে যে সিদ্ধা’ন্ত নেওয়া হয়েছিল, তা পরিবর্তন হওয়ার তেমন কোনো সম্ভাবনা নেই। আমা’র মনে হয়, বিষয়টি এরই মধ্যে চূড়ান্ত হয়ে গেছে।