রক্ষক যখন ভক্ষক, তখন সেই সমাজে'র ভবিষ্যত নিয়ে চিন্তিত হবার মতই, এবার খোদ পু’লিশের বি'রুদ্ধে উঠল মানিব্যাগ ছিনতাইয়ের অ’ভিযোগ। মন্দিরে আ'টকিয়ে মা’রধোরের পরে ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে মানিব্যাগ, ঘ’টনা সিলেটের জিন্দাবাজারের।

ঘ’টনায় স্থা’নীয় এলাকাবাসী নগরের প্রা’ণকে’ন্দ্র জিন্দাবাজারে সড়ক অবরো’ধ করে বিক্ষোভ ক’রেছেন। পরে পু’লিশের ঊর্ধ্বতন ক’র্তৃপক্ষের আশ্বা’সে তারা সড়ক অবরো’ধ তুলে নেন। শনিবার বিকাল ৩টার দিকে নগরের প্রা’ণকে’ন্দ্র জিন্দাবাজারে এ ঘ’টনা ঘ’টে।

লিশের হাতে লাঞ্ছিত নগরের দাড়িয়াপাড়ার এসডি ইমন জা’নান, অটোরিকশা যোগে তিনি দাড়িয়াপাড়া থেকে জিন্দাবাজার পয়েন্টে এসে নামেন। এসময় ডিউটিরত কতোয়ালী থা’নার এটি এস আই মাসুম অটো রিকশা চালক ও তাকে উদ্দেশ্য করে অশ্লী’ল গালি দেন।

এ নিয়ে বাকবিত-ার এক পর্যায়ে তাকে পাশের জগন্নাথ জিউড় আখড়ায় (মন্দিরে) নিয়ে মা’রধ’র করেন এবং মানিব্যাগ ছিনিয়ে নেন। মানিব্যাগে তার ১০ হাজার টাকা ছিলো বলেও তিনি অ’ভিযোগ করেন।

এদিকে পু’লিশের হাতে ওই যুবক লাঞ্ছিত হওয়ার এবং মানিব্যাগ ছিনতাইয়ের খবর ছ’ড়িয়ে পড়লে স্থা’নীয় বাসিন্দারা জিন্দাবাজার পয়েন্ট অবরো’ধ করে বিক্ষোভ করেন। পরে কোতয়ালি থা’নার এসি ইসমাঈলসহ পু’লিশ সদস্যরা ঘ’টনাস্থলে এসে সুষ্ঠু বিচারের আশ্বা’স দিলে তারা সড়ক অবরো’ধ তুলে নেন।

কোতয়ালি থা’নার এসি ইসমাইল হোসেন জা’নান, আম’রা ওই যুবকের কাছ থেকে লিখিত অ’ভিযোগ পেয়েছি। এ ব্যাপারে আম’রা পু’লিশ সদস্যের বি'রুদ্ধে ক’ঠিন ব্যব’স্থা নিচ্ছি। আর মানিব্যাগ ছিনিয়ে নেওয়ার বিষয়টি আম’রা সিসি ক্যামেরার ফুটেজ চেক করে ব্যব’স্থা নেব।